জকিগঞ্জে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

একটি গোষ্ঠী ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে বিভেদ সৃষ্টির চেষ্টা করছে

একটি গোষ্ঠী ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে বিভেদ সৃষ্টির চেষ্টা করছে

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি: সিলেটের জকিগঞ্জে নবনির্মিত মোশতাক চৌধুরী মেমোরিয়াল কমিউনিটি ক্লিনিকের উদ্বোধন করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে বারহাল ইউপির শাহবাগে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক ও স্থানীয় সংসদ সদস্য হাফিজ আহমদ মজুমদার নবনির্মিত ক্লিনিকের ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন এবং ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও ঔষধ বিতরণ কার্যক্রমের সূচনা করেন।
এ সময় এক অনুষ্ঠানে মোশতাক চৌধুরী মেমোরিয়াল কমিউনিটি ক্লিনিকের উদ্যোক্তা ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক সম্পাদক কাওসার চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও শিক্ষক শুভ্রকান্তি দাশ চন্দনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে দেশের শিক্ষা ও চিকিৎসাক্ষেত্র ব্যাপক এগিয়ে গেছে। গ্রামগঞ্জে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিদ্যুৎ, চিকিৎসা সেবা, যোগাযোগ ব্যবস্থার দিকে আওয়ামী লীগ ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় গিয়ে কমিউনিটি ক্লিনিকের প্রকল্প গ্রহণ করেছিলো। কিন্তু ২০০১ সালে বিএনপি সরকার ক্ষমতায় গিয়ে এ প্রকল্প বাতিল করে ছাগল পালনের প্রকল্প করেছিলো। বিএনপি বাংলাদেশকে আত্মমর্যাদা সম্পন্ন দেশ হিসেবে চায় না। এরশাদ-বিএনপি মিলে দেশ ২৯ বছর শাসন করেছে। কিন্তু কোন উন্নয়ন করেনি। বিএনপি এখন দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করে তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপে ক্ষমতায় যেতে চায়। আওয়ামী লীগকে ভোট দিলে ধর্ম যাবে বলে একটি মহল অপপ্রচার করে। ধর্মের অপব্যাখা দিয়ে জনগনকে বিভ্রান্ত করে। শেখ হাসিনা সরকার মসজিদ, মাদ্রাসা উন্নয়ন করেছেন। প্রতি উপজেলার মডেল মসজিদ স্থাপন করা হয়েছে। ক্বওমী মাদ্রাসাকে স্বীকৃতি দিয়েছে আওয়ামী লীগ সরকার। স্কুল, কলেজের শিক্ষকদের মতো ক্বওমী মাদ্রাসার শিক্ষকদের বেতন দিতে সরকার প্রস্তুত রয়েছে।
তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা ইতিমধ্যে ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। কিছু উপজেলায় এ নিয়ে দ্বিমত পোষণ করে আপিল করেছেন। আপিল আইনী ও সময়ের ব্যাপার। জকিগঞ্জ দেশের প্রথম মুক্তাঞ্চল সেটার কোন যথাযথ প্রমাণ মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হলে সংশোধনের উদ্যোগ নেয়া হবে। সিলেটেবাসীর গৌরবজ্জল ইতিহাস রয়েছে। দেশ বিভক্তের সময় গণভোটের মাধ্যমে সিলেট অঞ্চলকে ভারতের সঙ্গে যুক্ত করেন নাই ফলে আজ বাংলাদেশের সঙ্গে সিলেট রয়েছে। তিনি আরও বলেন, পৃথিবীর কোনও ধর্মই সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ সমর্থন করে না। একটি গোষ্ঠী ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে মানুষের মাঝে বিভেদ সৃষ্টির চেষ্টা করছে। ধর্মের অপব্যাখ্যা করে কেউ যাতে সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে সেদিকে সতর্ক ও ঐক্যবদ্ধ থাকতে মন্ত্রী সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সিলেট-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাফিজ আহমদ মজুমদার বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধারা যুদ্ধ করে আমাদের এই দেশ উপহার দিয়েছেন। তাদের অবদান দেশের সবকিছুর ঊর্ধ্বে, কারণ তাদের জন্য আজ আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি। তাদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা আমাদের সকলের দায়িত্ব। মোশতাক চৌধুরী মেমোরিয়াল কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করায় তিনি যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক সম্পাদক কাওসার চৌধুরীর ভূয়সী প্রশংসা করে আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেষ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ সঠিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে বাংলাদেশে অকল্পনীয় উন্নয়ন কর্মকান্ড চলছে। বাংলাদেশের উন্নয়নে সকল দলকে আন্তরিক হতে হবে। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করলে দেশে আরও উন্নয়ন হবে। দেশকে সমৃদ্ধশালী করে গড়ে তুলতে তিনি সকল দলের প্রতি আহবান জানান।
অনুষ্ঠানে অতিথির বক্তব্য দেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. আহমদ আল কবির, জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি লোকমান উদ্দিন চৌধুরী, গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুর শাফী চৌধুরী এলিম, জকিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একেএম ফয়সাল, জকিগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকির হোসাইন, সিলেট জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শামিম আহমদ, জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাজেদা রওশন শ্যামলী, জকিগঞ্জ থানার ওসি মোশাররফ হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হাসান আহমদ চৌধুরী প্রমূখ। এ সময় অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, রাজনীতিবিদ, শিক্ষক, সমাজসেবীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন।