সিলেটে ফের ফুটপাতে 'হকারদের রাজত্ব'

সিলেটে ফের ফুটপাতে 'হকারদের রাজত্ব'
ছবি- জাগো সিলেট

সিলেট নগরে ফুটপাতগুলোতে পথচারীদের নির্বিঘ্নে চলাচলের সুবিধার্থে অবৈধ দখলদার ও ভ্রাম্যমাণ ব্যবসায়ীদের সরিয়ে নেওবার পরও আবার ফুটপাত হকারদের দখলে চলে গেছে। সম্প্রতি নগরের গুরুত্বপূর্ণ সড়কের ফুটপাতে 'হকারমুক্ত এলাকা' সাইনবোর্ড দিয়েছিলো সিলেট সিটি করপোরেশন।

মঙ্গলবার বিকেলে নগরের জিন্দাবাজার, বন্দরবাজর এলাকা ঘুরে ফুটপাতে হকারদের ব্যবসা করতে দেখা গেছে। কোর্টপয়েন্ট থেকে চৌহাট্টা এলাকার প্রায় এক কিলোমিটার ফুটপাতজুড়ে অবৈধভাবে দখলে রয়েছে হকাররা। হকারকে ফুটপাতে পসরা সাজিয়ে বসেছেন। তবে হকাররা বলছেন- 'ঈদকে ঘিরে তারা অল্প কিছু সময়ের জন্য এখানে বসেছেন।'

তবে এ ব্যাপারে সিলেট সিটি করপোরেশনের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, নিয়মিত অভিযান চালিয়েও ফল পাও যাচ্ছে না। এখানে বড় কোন সিন্ডিকেট কাজ করছে।

মঙ্গলবার রাত আটটার দিকে চৌহাট্টার কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার এলাকায় গিয়ে প্রায় অর্ধশতাধিক হকারদের দেখা গেছে। ফুটপাত ছাপিয়ে সড়কের অর্ধেকটাও তাদের দখলে। এসময় কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারের নিরাপত্তা কর্মী আফতাব হোসেন জাগো সিলেটকে বলেন, 'আমি বারবার হকারদের বলছি এখানে বসা নিষেধ রয়েছে। কিন্তু হকাররা দাবি করছেন- মেয়র আরিফ তাদের দুইতিন বার এখানে ব্যবসা করতে দেখেছেন। তিনি নিষেধ করেননি।'

নগরীর কোর্ট পয়েন্ট থেকে চৌহাট্টা পর্যন্ত সড়ক ও ফুটপাত দখলমুক্ত এবং এ সড়কের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে লালদীঘিরপাড়স্থ খালি জায়গায় প্রায় ১ হাজার ২০০ হকারকে স্থানান্তর করেছে সিসিক ও এসএমপি কর্তৃপক্ষ। তবুও রাস্তা থেকে ফেরানো যাচ্ছেনা হকারদের।

এ ব্যাপারে জানতে সিলেট সিটি করপোরেশন মেয়র আরিফুর হক চৌধুরীর সঙে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।